যে কোন ভিসা প্রোসেসিং বা ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র জন্য iMacros এবং Multifox এই দুটি এডঅন ব্যবহার অনেক গুরুত্বপূর্ণ । তাই আজ আমি ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র কাজে iMacros এবং Multifox এই দুটি এডঅন এর ব্যবহার দেখাব।

Imacros:

iMacros এর দ্বারা যেকোন সাইটেরই ইন্ডিয়ান ভিসা (indian visa) ফর্ম মাত্র এক ক্লিকের মধ্যমেই পূরন করতে পারবেন তাই যারা ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র (indian visa) কাজ করেন না তারাও এই টিউটোরিয়াল দেখে উপকৃত হতে পারেন। iMacros এর সাহায্যে খুব সহজেই ব্রাউজারের Activity রেকর্ড করে পরবর্তিতে সেই অনুযায়ী ইনপুট করা যায়। তো আমরা যারা ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র কাজ করি তাদের টেম্পরারি ফাইল তৈরি করতে হয়। অনেকেরই টেম্পরারি ফাইল তৈরি করতে বিড়ম্বনা পোহাতে হয়। তারা যদি iMacros Add-on টি ব্যবহার করেন তাহলে খুব সহজেই এবং তারাতারি টেম্পোরারি আইডি তৈরি করতে পারবেন।

iMacros এর এই টিপসটি মুলত তাদের জন্য যারা সর্বপ্রথম ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র টেম্পরারি আইডি তৈরি করেন। প্রথমে আমরা যখন ক্লায়েন্টের ইনফরমেশন পূরন করি তখন যদি iMacros ব্যবহার করি তাহলে পরবর্তিতে রেকর্ডেড ডেটা থেকে খুব সহযেই টেম্পোরারি আইডি তৈরি করতে পারব।

এখানে আমি ভিডিও টিউটোরিয়াল এবং টেক্সট দুটির মাধ্যমেই দেখাচ্ছি কিভাবে এটি ব্যবহার করতে হয়। নিচে ভিডিও টিউটোরিয়াল দেওয়া হল।

ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র টিউটোরিয়াল

এজন্য আমরা প্রথমে iMacros Add-on টি ফায়ারফক্স এর জন্য ইন্সটল করে নিব। আমরা এখান থেকে Add-onটি ডাউনলোড করে নেই। iMacros Add-on ইন্সটল এর পরে আমরা নিচের মত একটা আইকন দেখতে পাব। এখানে ক্লিক করার পরে বাম পাশে iMacros এর ইন্টারফের দেখতে পাওয়া যাবে।

ইন্ডিয়ান ভিসা (3)

 

iMacros এই Add-on এর সবথেকে বড় সুবিধা হল এর রেকর্ডগুলো ফাইল হিসাবে থাকে এবং যত খুশি তত ফাইল রাখার সুবিধা রয়েছে। ফাইলগুলো ফোল্ডার এর মাধ্যমে সাজিয়ে রাখা যায়। আমরা ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র কাজের ক্ষেত্রে ক্লায়েন্টের নামের সাথে মিল রেখে ফাইলের নাম রাখতে পারি এতে করে সহজেই ফাইলটি খুজে পাওয়া যাবে।

ইন্ডিয়ান ভিসা (2)

 

iMacros Add-on টি ইন্সটল হয়ে গেলে আমরা এই Add-on এর রেকর্ডিং অন রেখে একটা ফাইল পূরন করব। এজন্য আমরা ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র সাইটে চলে যাই, এবং নতুন ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র জন্য ফর্ম পূরন করি। এখানে ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র সাইটের ফর্ম পেজের প্রথম পাতায় এক্সেস কোড রয়েছে যেটা প্রতিবার চেইঞ্জ হয় সেজন্য আমরা এক্সেস কোডের ঘরটি পূরন করব না। আমরা এই পেজের জন্য একটা রেকর্ডিং ফাইল এবং অন্য তিন পেজের জন্য আর একটা রেকর্ডিং ফাইল তৈরি করব। আমরা ফর্মের ঘরগুলি পূরন করার আগে অবশ্যই রেকর্ডটি অন করে নেই। ফাইল পুরন হয়ে গেলে রেকর্ডিংটা অফ করে দেই। এবারে এক্সেস কোডটি দিয়ে পরের পেজ এ যাই। এর পর আবার রেকর্ডিংটা অন করে পরের তিন পেজ পূরন করি। আমরা এক্ষেত্রে দুইটা রেকর্ডিং ফাইল পেলাম। আমরা ফাইলগুলি ক্লায়েন্টের নাম এবং পেজের নাম অনুযায়ী সেভ করে নিতে পারি।

ইন্ডিয়ান ভিসা (4)

 

এবারে আমদেরকে রেকর্ডেড ফাইলের ভিতরে কিছু পরিবর্তন করতে হবে। এজন্য আমরা ফাইলের উপরে রাইট ক্লিক করে Edit Macro তে যাই। Edit Macro তে যাওয়ার পরে উপরের মত একটা Window দেখতে পাওয়া যাবে। এখানে দেখুন লাল দাগ দেওয়া যে অংশটুকু রয়েছে এইটুকু ডিলিট করে দিতে হবে। আমরা ওই অংশটুকু ডিলিট করে save & Close এ ক্লিক করি। দুইটা ফাইলের ক্ষেত্রেই একই কাজ করি।

এবারে আমরা নতুন টেম্পোরারি আইডি তৈরি করার জন্য প্রস্তুত।

ইন্ডিয়ান ভিসা (1)

 

আমরা আবার ইন্ডিয়ার ভিসার সাইটে গিয়ে Online Visa Application এ যাই। এখন এই পেজের জন্য যে ফাইল তৈরি করা হয়েছে সেই রেকর্ডেড ফাইলের উপরে ডাবল ক্লিক করি তাহলে ফাইলটি রান হবে। দেখা যাচ্ছে এই পেজের ইনফরমেশনগুলি সব নিজে থেকেই পূরন হয়ে গিয়েছে। এবার Access কোড প্রবেশ করিয়ে পরের পেজ এ যাই এবং শেষ তিন পেজের জন্য যে রেকর্ডেড ফাইল তৈরি করেছিলাম সেটি রান করি। রান করলে পরের তিন পেজের ইনফরমেশনও পূরন হয়ে যাবে।

এভাবে Imacros Add-on এর সাহায্যে খুব সহজেই টেম্পোরারি আইডি তৈরি করা যায়।

Multifox: (Only for beginners)

Multifox একটি চমৎকার Add-on। এটি মূলত ব্যবহার করা হয় একই ব্রাউজার থেকে বিভিন্ন আইডিতে লগিন করার জন্য। যারা Multifox Add-on এর সাথে পরিচিত না তাদের এই টিটোরিয়ালটি অনেক কাজে লাগতে পারে। Multifox এর মাধ্যমে ইন্ডিয়ান ভিসার কাজে অনেকগুলি আইডি থেকে ডেট এর জন্য এপ্লাইয়ের জন্য ব্যবহার করা হয়। এটার কাজ একেবারেই সহজ তবুও যারা নতুন তারা এই টিউটোরিয়ালটি দেখতে পারেন।

ইন্ডিয়ান ভিসার কাজে  এই ভার্সনের  Multifox টি ব্যবহার করবেন।

আগামিতে ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র ডেটপাওয়ার নতুন টিপস নিয়ে টিউটোরিয়াল করার ইচ্ছা আছে। ইন্ডিয়ান ভিসার নতুন আপডেট টিউটোরিয়াল পেতে যুগটেক সাইটে নিয়মিতি ভিজিট করতে পারেন।

আপনারা যারা ইন্ডিয়ান ভিসা ‘র কাজ জানেন কিন্তু ভালো বিশ্বস্থ লোক পাচ্ছেন না তারা বিভিন্ন ওপেন সোর্চে কাজ করে এমন ব্যাক্তিদের সাথে যোগাযোগ রাখতে পারেন।