বিশ্বে মিলিটারি / আর্মি বাহিনী এখন প্রযুক্তির নতুন নত্য অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে সম্মুখে। মিলিটারি / আর্মি বাহিনী তে এখন অর্থায়নের খাত সব থেকে বেশি। তাই আজকে আমাদের আলচনার বিষয় বিশ্বের সব থেকে সেরা ১০ মিলিটারি /আর্মি বাহিনী যারা এই পৃথিবীকে শাসন করছে! প্রযুক্তি আজ আমাদের নিত্য প্রয়োজন ছাড়িয়ে আমাদের নিজেদের রক্ষার কাজেও সমান ব্যবহার হচ্ছে। যুদ্ধ কিংবা আত্মরক্ষা প্রযুক্তি সারাক্ষণ আমাদের সামনে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। নিত্য নতুন প্রযুক্তির উৎকর্ষতা আমাদের এগিয়ে নিচ্চে বহুল অংশে।  :/

আমরা যুদ্ধের গেম খেলতে অনেকে খুব পছন্দ করি। নতুন সব প্রযুক্তি সমৃদ্ধ যুদ্ধ যান সেখানে ব্যবহার করা হয়। এই সব প্রযুক্তি যান এখন শুধু আমাদের গেমের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়, বিভিন্ন মিলিটারি বাহিনীও তাদের বিভিন্ন আত্যাধুনিক সমরাস্ত্র ব্যবহার করছে। যা আমাদের জন্য সব কল্যাণকর কিনা ভাবিয়ে তোলে অনেক সময়। যাইহোক আজ আমরা সেই সব যুদ্ধ যান ব্যবহার করে শক্তির দিক দিয়ে যারা বর্তমান সময়ে বিশ্বের সেরা মিলিটারি বা আর্মি বাহিনী তাদের বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে জানবো। তাহলে দেরি করে কি লাভ চলুন শুরু করি জানতে।  o.O

মিলিটারি (1)

বিশ্বের সব থেকে সেরা ১০ মিলিটারি বা আর্মি বাহিনীঃ

প্রথমেই দেখে নিই দেশগুলোর সামরিক খাতে বাজেট এবং কি কি আছে সেই সব দেশে। এক পলকে সব গুলো দেশের সামরিক ব্যবস্থা ক্রমানুসারে-

মিলিটারি (2)

 

১) ইউএসএ (United States of America)

বিস্মিত হওয়ার জন্য আপনাকে ইউএস এই নৌ বাহিনী দেখলেই তা সম্ভব। অ্যামেরিকা ৫৭৭ বিলিয়ন ডলার খরচ করে তাদের এই প্রতিরক্ষা বাহিনীর জন্য। যেখানে চীন ১৪৫ বিলিয়ন ডলার খরচ করছে, যেটা ইউএস ৪ ভাগের বেশি খরচ করছে। চীন বা ইন্ডিয়া বা অন্য দেশের থেকে সব থেকে বেশি সামরিক খরচ করেন USA.

অ্যামেরিকা তাদের বিশ্ব নেতৃত্ব দেওয়ার একটি বড় ভূমিকা এই শক্তিশালী সামরিক খাত।

মিলিটারি (3)

 

২) রাশিয়া (Russia)

অ্যামেরিকার স্নায়ু যুদ্ধর প্রতীক স্বরূপ রাশিয়ার এগিয়ে চলা। বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নৌ বহর রাশিয়ার, যেটা তেল উৎপাদন এবং সংরক্ষণের জন্য বিখ্যাত। বিশ্বে রাশিয়া ৪ নাম্বার বিভিন্ন দৃষ্টিকোন থেকে দখল করলেও সেটা এগিয়েছে এখন। ইউক্রেন সমস্যায় রাশিয়া তাদের স্পেশাল অপারেশন ফোর্স এবং প্রোপাগান্ডা আর্মস ব্যবহার করে যেটা বিশ্বের সেরা কয়েকটি বাহিনীর একটি।

মিলিটারি (4)

 

৩) চীন (China)

চীন বিশ্বের দ্বিতীয় মিলিটারি বাজেট রাখে, যাদের আছে তৃতীয় সেরা বিমান বাহিনী এবং দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ট্যাঙ্ক ফোর্স। চীনের আছে বিশ্বের সব থেকে বেশি সেনাবাহিনীর মহড়া। চীনের স্পেশাল ফোর্স ২০১৪ এর সেরা (অয়ারিয়র গেমস ইন জর্ডান) ৪ স্পটের ৩ টিতেই অবদান রাখে।

মিলিটারি (5)

 

৪) ইন্ডিয়া (India)

ইন্ডিয়ার বড় লেবার ফোর্স এবং বড় ধরণের সার্ভিস মেম্বারের জন্য পৃথিবী বিখ্যাত। ইন্ডীয়ার বড় বিমান বাহিনী এবং ট্যাঙ্ক বাহিনী আছে। সেই সাথে ইন্ডিয়ার নৌ বাহিনী (নেভি) ও অনেক সম্মানজনগ বিশ্বের দরবারে। তেলের পরিমান কম থাকায় ইন্ডিয়া অনেক পিছিয়ে থাকে। মজার বিষয় হল ইন্ডিয়ার বর্ডার বাহিনী বিশ্বের সব থেকে অত্যাধুনিক বাহিনী যেটা camel-mounted regiment নিয়ন্ত্রণ করে।

মিলিটারি (12)

 

৫) ইউকে (United Kingdom)

ছোট ট্যাংক ফোর্স, কম সংখ্যক বিমান বাহিনী এবং কম সংখ্যক মিলিটারি বাহিনী  সত্ত্বেও বিশ্বের সেরা ৫ অবস্থানে আছেন united kingdom। ইউকের আছে বিশ্বের সবথেকে বড় ১৫ তম নৌ বাহিনী, ৫ম সর্বোচ্চ মিলিটারি বাজেট। অবস্থানগত কারণে ইউকের অন্য আইল্যান্ডে আক্রমণ করা কষ্টসাধ্য। তবে সামরিক খাতে আছে সমান নজর।

মিলিটারি (6)

 

৬) ফ্র্যান্স (France)

ফ্র্যান্স খুব ইম্প্রেসিভ সংখ্যক ট্যাংক, প্লেন বা শিপ দেখাতে পাওয়া যায় না, তবে যেগুলো আছে সেগুলো খুব অত্যাধুনিক। Mirage, Rafale jets,Tiger helicopters, LeClerc main battle tanks এবং  the only nuclear-powered carrier সামরিক অস্ত্র যা ইউএস বাহিনী ছাড়া একমাত্র ফ্র্যান্সের মিলিটারিতে প্রদান করা হয়।

ফ্র্যান্স সব সময় তাদের রক্ষার জন্য নিত্য নতুন সমরাস্ত্র তৈরি করেন এবং বৃদ্ধি করছেন সামরিক খাত যেটা তাদের প্রটেকশনে ভার বহন করতে পারে।

মিলিটারি (7)

 

৭) দক্ষিণ কোরিয়া (South Korea)

দক্ষিণ কোরিয়ার আছে ষষ্ঠ বড় মিলিটারি বাহিনী, যাদের ষষ্ঠ বড় বিমান বাহিনী এবং অষ্টম বড় নৌ বাহিনী আছে। যদিও কোরিয়ার বাজেট অনেক কম এই সামরিক খাতে।

দক্ষিণ কোরিয়ার বড় প্রতিবন্ধকতা উত্তর কোরিয়া। বিশ্বের বড় নৌ জাহাজ থাকলেও ব্যক্তি কেন্দ্রিক লোক কম থাকায় তারা সামরিক খাতে পিছিয়ে থাকে।

মিলিটারি (8)

 

৮) জার্মানি (Germany)

গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ার থেকে জার্মান মিলিটারি র‍্যাঙ্ক পায়। তাদের ভালো অর্থনৈতিক অবস্থা, মিলিটারি খাতে ব্যয় এবং ভালো প্রশিক্ষণের জন্য জার্মান এদিকে এগিয়ে যাচ্ছেই। তবে জার্মানির তেল উৎপাদন তুলনামূলক কম থাকায় তারা পিছিয়ে থাকছে। কয়লা এবং নিউক্লিয়ার পাওয়ার কমে যাওয়ায় জার্মান সামরিকে কিছুটা পিছিয়ে পড়ছে দিন দিন।

মিলিটারি (9)

 

৯) জাপান (Japan)

জাপান অনেক বেশি এগিয়ে থাকতো সামরিক র‍্যাঙ্কে যদি এখানকার মানুষ যুদ্ধে বেশি আগ্রহী থাকতো। ব্যয়ে এবং শক্তিতে পৃথিবীর ষষ্ঠ সামরিক খাতের দেশ জাপান। জাপানের আছে পঞ্চম বড় বিমান বাহিনী এবং চতুর্থ বড় নৌ বাহিনী। তবে নিজেদের বিভিন্ন ব্যবস্থাপনার কারণে জাপান সামরিকে পিছিয়ে যাচ্ছে বহুলাংশে।

মিলিটারি (10)

 

১০) তুর্কী (Turkey)

কাজের দিক দিয়ে তুর্কী মিলিটারি অনেক এগিয়ে। তুর্কীর আছে বড় সংখ্যার সেনা বাহিনী এবং ট্যাংক ফোর্স। তারা তাদের নেভি বাহিনীকেই উন্নত করছে অনেক বেশি। তবে অনেক দ্রুত তুর্কী বাহিনী সামরিকে অনেক দিক থেকে উন্নত হচ্ছে বা হবে খুব বেশি।

মিলিটারি,আর্মি বাহিনী,military,army,commando

মিলিটারি (11)

 

বর্তমানে সামরিক খাতে উন্নত একটি দেশই এগিয়ে যাবে আধুনিক বিশ্বে, তাদের সম্মান ধরে রাখবে সবার মাঝে। যেকারনে সামরিক খাতে এখন সব দেশের সমান নজর। তবে ভালো অর্থনৈতিক অবস্থা এবং দেশের ভেতর নিয়ন্ত্রণ অবস্থা ভালো না থাকলে সেই দেশ সামরিক খাতে এগিয়ে যেতে সমস্যা হয় একটু বেশি। 😮  বাংলাদেশ সামরিক খাতের বাজেটে বিশ্বে ৬৯ তম দেশ হিসাবে আছে। (১৫৯ কোটি ডলার)

আপনাদের কাছে আরও তথ্য থাকলে আমার সাথে শেয়ার করতে পারেন আর কোন ধরণের প্রশ্ন থাকলেও আপনার দ্বার খোলা থাকছেই।

 

2 COMMENTS