ঈদকে সামনে রেখে সারা দেশজুড়ে চলছে নানা কেনা-কাটা, আনন্দ আয়োজনের প্রস্তুতি। তবে প্রযুক্তিপ্রেমীরা নতুন পোশাকের পাশাপাশি ঠিকই বাজেট রেখেছে নতুন মডেলের ডিভাইস কেনার জন্য। এতে অনেক দিন পর জমজমাট হয়ে উঠেছে এ সময়ের প্রযুক্তি বাজার।রাজধানীর আগারগাঁও-এ অবস্থিত দেশের সবচেয়ে বড় কম্পিউটার বাজার বিসিএস কম্পিউটার সিটিতে গত শুক্রবার ছিল ক্রেতাদের সরগরম উপস্থিতি। এছাড়া এলিফ্যান্ট রোডে গড়ে ওঠা দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম কম্পিউটার মার্কেট মাল্টিপ্ল্যান সেন্টারেও হাঁটার জায়গা পাওয়া যায়নি, সেই সঙ্গে ছিল ধুম বিকিকিনি।

ঈদ উপলক্ষ্যে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর নানা ছাড়ে ক্রেতারা কিনছেন তাদের পছন্দমত প্রয়োজনীয় ডিভাইসটি। ঈদ বাজারে মূলত অনেকেই তাদের ডিভাইসের মডেল পরিবর্তন করছেন।  এ কারণে হাই কনফিগারেশনের ল্যাপটপগুলো বেশি বিক্রি হচ্ছে বলে জানান বিক্রেতারা।

ডেস্কটপ ও কেসিং

টেক জায়ান্ট অ্যাপলের ম্যাক এয়ার এবং ম্যাকবুক প্রো বিক্রি হচ্ছে ৮২ হাজার থেকে শুরু করে ২ লাখ ৩৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। অন্যদিকে গেমিং ডেস্কটপ কম্পিউটারের চাহিদাও বেড়েছে। অন্যান্য ছোট খাটো ডিভাইস ছাড়াও প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ কিনছেন আগত ক্রেতারা।

তবে বাজারে ক্রেতারা যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় থার্মালটেক ব্র্যান্ডের কেসিং কিনতে এসেও ফিরে গেছেন। বিসিএস কম্পিউটার সিটি ছাড়াও মাল্টিপ্ল্যান সেন্টারের কোনো দোকানে এ ব্র্যান্ডের কেসিং নেই। বাংলাদেশে এই ব্র্যান্ডের কেসিং সবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ইউসিসি-এর শরিফ মোহাম্মদ ফয়সাল হায়দার জানান, ‘স্টক কম থাকায় যা ছিল সব বিক্রি হয়ে গেছে’। থার্মালটেক ছাড়াও তাইওয়ান ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানে কুলার মাস্টারের কেসিং-এর চাহিদাও ছিল অনেক।

thermaltakemk1beauty-big

 

রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসে ক্রেতারা থার্মালটেকের কেসিং না পেয়ে ননব্র্যান্ড একটি কেসিং কিনে নিয়ে গেছে।

বর্তমানে বাজারে ১ হাজার ৮শ’ থেকে শুরু করে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত দামের কেসিং রয়েছে।

রিমুভেবল ড্রাইভ

অন্যদিতে হার্ডড্রাইভের বিক্রিও বেড়েছে দেখারমতো। আগের তুলনায় দাম কিছুটা কম হওয়ার কারণে বিক্রি বাড়ছে বলে জানান বিক্রেতারা। বর্তমানে ইন্টারনাল এক টেরাবাইট হার্ডড্রাইভের দাম ৫ হাজার টাকা। আর ৫০০ গিগাবাইট হার্ডড্রাইভ বিক্রি হচ্ছে ৩৫০০ টাকায়।

এছাড়া মাউস, কি-বোর্ড, পেনড্রাইভ, ডিভিডি রম, র‌্যাম, স্পিকারসহ অন্যান্য পণ্যের দাম অপরিবর্তিত আছে। বিভিন্ন মডেল এবং ক্ষেত্রবিশেষে মূল্য ১০০-২০০ টাকা কমেছে।

প্রিন্টার

ক্যানন, ব্রাদার, লেক্সমার্ক, এইচপি ও স্যামসাংসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের প্রিন্টার বিক্রি হচ্ছে তিন হাজার টাকা থেকে শুরু করে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত।

MFC-5890CN_(1)

 

সফটওয়্যার ও অপারেটিং সিস্টেম

৫০ টাকা থেকে ৭০ টাকায় যেখানে উইন্ডোজের সিডি/ডিভিডি পাওয়া যায় সেখানে বর্তমানে দেশের বাজারে কয়েকটি সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যার বাজারজাত ও বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের উইন্ডোজ ৮.১ অপারেটিং সিস্টেমের অরিজিনাল কপি বিক্রি করছে ১০ হাজার ৪০০ টাকায়। মাইক্রোসফটের অফিস ৩৬৫ হোম বিক্রি করছে ৭ হাজার টাকায়। তবে এসব অরিজিনাল সফটওয়্যার এবং অপারেটিং সিস্টেম খুব কম বিক্রি হচ্ছে।

Win8.1_Boxshot_LeftAngle_524993DF_r1_c1_3

 

বাইনারি কোডের এক কর্মকর্তা জানান, আমাদের দেশে সবাই পাইরেটেড সফটওয়্যার ব্যবহার করতে অভ্যস্ত হয়ে গেছে। কেউ টাকা খরচ করে আসল সফটওয়্যার কিনে না। প্রাতিষ্ঠানিকভাবে বিক্রি হলেও ব্যাক্তিগতভাবে কেউ আসল সফটওয়্যার কিনে না।

ল্যাপটপ ও মাদারবোর্ড

ঈদ উপলক্ষ্যে প্রযুক্তি পণ্যের উপর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নানা ছাড় দিচ্ছে। গিগাবাইট ব্র্যান্ডের মাদারবোর্ডে বিক্রিতে চলছে বিশেষ অফার। অফারের আওতায় ক্রেতাদের জন্য রয়েছে গিগাবাইট ব্র্যান্ডের ৯ সিরিজের মাদারবোর্ডগুলোর সঙ্গে ফুটবল, স্নাইপার সিরিজের মাদারবোর্ডগুলোর সঙ্গে টি-শার্ট এবং ৬১ সিরিজের মাদারবোর্ডগুলোর সঙ্গে ওয়ালেট উপহার থাকছে।

প্রতিটি মডেলের এইচপি ল্যাপটপে উপহার হিসেবে পাওয়া যাবে ৫০০-১০০০ টাকার গিফট ভাউচার।

ঈদ উপলক্ষ্যে অ্যাভিরা ইন্টারনেট সিকিউরিটি কিনলে সঙ্গে উপহার হিসেবে রয়েছে ওয়্যারলেস বা তারহীন মাউস এবং টি-শার্ট। ডেল ইন্সপায়রন, স্টুডিও এক্সপিএস এবং ভস্ট্রো মডেলের ডুয়াল কোর থেকে শুরু করে কোর আই-৭ পর্যন্ত যে কোনো ডেল ল্যাপটপ কিনলেই উপহার হিসেবে মিলবে আগোরা থেকে কেনাকাটার গিফট ভাউচার।

আসুসের যে কোনো মডেলের ল্যাপটপ এবং ট্যাবলেট পিসি কিনলে পাওয়া যাবে আসুসের মানিব্যাগ, কার্ড হোল্ডার এবং চাবির রিং দিয়ে সাজানো আকর্ষণীয় গিফট বক্স।

Acer Aspire P3 front_back

 

এসার ব্র্যান্ডের যে কোনো মডেলের ল্যাপটপ কিনলেও পাওয়া যাবে ২০০০ টাকার গিফট ভাউচার। যা দিয়ে কেনাকাটা করা যাবে স্বপ্ল, কে-ক্রাফট, রস, মিষ্টি অথবা সেবা পাওয়া যাবে পারসোনায়।

সারাদিন কম্পিউটার বাজার ঘুরে বোঝা গেলো পাঞ্জাবি, শার্ট, টি-শার্ট, জিন্স কিংবা জুতা-স্যান্ডেলেই সীমাবদ্ধ নেই ঈদের কেনাকাটা। দেশে প্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে এটাই তার প্রমাণ। প্রযুক্তি এখন সবার হাতের নাগালে। এখন আর প্রযুক্তিকে কেউ বিলাসীতা বলতে পারবে না, বরং এটি এখন প্রয়োজনীয়তার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

প্রযুক্তি বাজারেও ঈদের আমেজ,প্রযুক্তি বাজারেও চলছে ঈদ আয়োজন,Business,Desktop,Laptop,Life,Local,Printer,আগারগাঁও,ঈদকে সামনে রেখে সারা দেশজুড়ে চলছে নানা কেনা-কাটা,ডেস্কটপ ও কেসিং,রিমুভেবল ড্রাইভ,সফটওয়্যার ও অপারেটিং সিস্টেম,ল্যাপটপ ও মাদারবোর্ড