এতদিন আমরা দেখে এসেছি স্মার্টওয়াচগুলো স্মার্টফোনের সাথে সিঙ্ক হয়ে কাজ করে। স্মার্টফোন ছাড়া একটা স্মার্টওয়াচ শুধু সময় দেখানো ছাড়া কিছুই করতে পারতো না। কিন্তু স্যামসাং এই লিমিটেশন থেকে উতরাতে চাচ্ছে। তারা তৈরি করছে এমন স্মার্টওয়াচ যা স্মার্টফোনের সাথে সিঙ্ক না হয়েই কাজ করতে পারবে।

ওয়ালস্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদন অনুযায়ী সাউথ কোরিয়ান এই জায়ান্ট বিভিন্ন টেলিকমিউনিকেশন ক্যারিয়ারের সাথে কথা বলেছে এবং তারা এমন একটি স্মার্টওয়াচ তৈরি করতে চাচ্ছে যা নিজেই একটি ফোন হিসেবে কাজ করবে। অসাধারণ! ভবিষ্যতে এমনটাই আশা করবে মানুষ। বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীতে আমরা রিস্ট ওয়াচ দিয়ে যোগাযোগ করতে দেখেছি। দেখেছি ভিডিও কলিং করতে। কল্পনা এখন বাস্তব হতে চলেছে।

uE2jCDy

ব্যবহারকারীরা স্মার্টওয়াচের সাহায্যে কল করতে সমর্থ হবে। এর জন্য ব্যবহারকারীকে তার কব্জিতে লাগানো স্মার্টওয়াচটি মুখের কাছে এনে কমান্ড দিতে হবে। সত্যিই স্মার্ট!

ভিডিও টি দেখতে নিচের লিঙ্ক এ ক্লিক করুন।

youtube video link

স্মার্টওয়াচ তৈরির পর থেকেই ধারনা করা হয়েছিল যোগাযোগ প্রযুক্তিতে এটি বিপ্লব ঘটাবে। স্যামসাং নতুন এই স্মার্টওয়াচ তৈরি করলে সেটা বাস্তবে পরিণত হবে। বর্তমানে সকল স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে কল করতে হলে স্মার্টফোনের সাথে সিঙ্ক করা অবস্থায় থাকতে হয়। অর্থাৎ স্মার্টওয়াচটি অনেকটা কন্ট্রোলারের মত কাজ করে। কিন্তু ভবিষ্যত স্মার্টওয়াচ হবে স্বয়ংসম্পূর্ণ। এতে সিম প্রবেশ করানো যাবে এবং মাধ্যমে কথা বলা, ভিডিও চ্যাট সব কিছু করতে সমর্থ হবেন ব্যবহারকারীরা।

mlSB5JN

ওহ এবং ভাল কথা, স্যামসাং এর নতুন এই স্মার্টওয়াচে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে থাকছে স্যামসাং এর নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম “টাইজেন”। স্মার্টওয়াচ বা ওয়াচ-ফোন যাই বলুন না কেন এর নাম আসলে কি হবে সেটা স্যামসাং এখনও পরিষ্কার করে বলে নি।

সবচেয়ে আকর্ষণীয় যে ব্যাপারটি, আগামী জুন অথবা জুলাইতে লঞ্চ করা হবে এই প্রোডাক্ট। সুতরাং প্রযুক্তি প্রেমিরা দিন গুনতে থাকুন।