হ্যালো গাইজ,আমি একটা অনলাইন আর্নিং আইডিয়া নিয়ে কথা বলবো আজ। অনেক রকম ভাবেই চেষ্টা করলেন না নেট থেকে আয় করতে ??  পারলেন ? আমার ধারনা , শতকরা ৩% ও বলবে না তারা সফল। আজকে আসেন একটু অন্য ভাবে চেষ্টা করা যাক।

বেকার , খুবি কমন শব্দ । আপনি একা না, আপনারা হয়তো কয়েক জন মিলে আড্ডা মারেন একসাথে, দেখা যায় মোটামুটি সবাই ই বেকার। তো একা না, আপনারা কজন মিলেই শুরু করেন।

আইডিয়া নতুন কিছু না, বেশ পুরাতন। তবে আপনিও পারবেন এবার।

আপনার লাগবেঃ

১ । ম্যান পাওয়ারঃ আছে তো, আপনার কোন কাজ কাম নাই এমন বন্ধুবান্ধব নাই? তাদের ডাক দেন আমার পোস্টে।

২। একটা ওয়েবসাইটঃ খুব কঠিন কিছু না। ডেভেলপার কাউরে দিলেই বানায়া দিবে।

৩। টাকাঃ খুব বেশী না ভাই, একটা সাইট বানাইতে হাজার দশেক, আর মার্কেটিং এর জন্য ৫ হাজার।

আসেন কাজের কথায়। আপনার শহরে যেকোন একটা প্রোডাক্ট সিলেক্ট করেন। গ্রামাঞ্চলে এই টেকনিক খাটবে না, কয নেট ব্যাবহার কারী কম। প্রডাক্ট হইতে পারে কম্পিউটার হার্ডয়্যার থেকে শূরু করে্‌ লবন, তেল বা টি শার্ট।

আপনি একটা সাইট বানানোর পরে, কোন একটা বড়, ধরলাম কম্পিউটার এর দোকানে যান। যেয়ে তাদের সাথে আলাপ করে ঠিক করেন, নিজেদের উদ্দ্যেশ্য বর্ননা করেন, এন্ড জিগেস করেন ঠিক কত কমে তারা দিতে পারবে। এক যায়গায় না, কয়েক টা দোকানে যান। ধরলাম, একটা কিবোর্ড এর মার্কেট প্রাইজ ১ হাজার টাকা। এগুলো প্রডাক্টে লাভ ভালোই, উনি যদি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য 100 টাকা কমে দেন, তো আলাপ করে ফেলেন।  না না, আপনাকে কিনতে হবে না ঐটা ! আপনি সুধু আলাপ করে আসেন, লাগলে নিয়ে যাবেন।

অনলাইন আর্নিং! এর উপায়

অনলাইন আর্নিং (1)

 

তাদের একটা প্রোডাক্টের মার্কেট সৃষ্টি হবে অনলাইনে, সো কিছু কম দামে তারা দিবেই, চিন্তা নাই।

এবার, আপনাকে আপনার সাইটের মার্কেটিং এ নামতে হবে। একটা ব্যাণার বানাইতে গড়ে ৩০০ টাকা লাগে। বানান কয়েক টা, শহরের গুরত্বপুর্ন যায়গায় লাগায়া দেন। এগুলো খুব ভালো সিস্টেম, মাত্র ৩০০ টাকায় ঠিক কতজন দেখবে সেটা হিসেবের বাইরে। রোজ আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর বাড়তেই থাকবে।  এর মাঝে একজন দুইজন করে কিছু কিনতে আগ্রহী হবে।  কি কিনবে ? আরেহ ভাই, ঐযে কিবোর্ড টা দেখে আসলেন, সেটার ই পোস্ট থাকবে আপনার সাইটে। আপনাকে কিনতে হবে না, আপনি সুধু মাঝখানে কাজ করবেন, যে কিনবে, তার টাকাই দিয়ে আসবেন ঐ দোকানে।

একটু বেশী দামে বেচবেন আরকি। বেশী বলতে অল্প বেশী, খুব বেশী দাম ধরলে কইলাম বিক্রি হবে না।

অনলাইন আর্নিং! এর উপায়

অনলাইন আর্নিং (2)

 

এখন চিন্তা করেন, একটা দোকান খুলতে আপনাকে কত লক্ষ্ টাকা ইনভেস্ট করতে হতো। সেটার ভাড়া, ডেকরেশন, সবকিছু মিলিয়ে কত টাকা লাগতো, কোন মাল দোকানে তুলতে কত টাকা লাগতো। পুরোটা আপনি একটা প্রফেশনাল ওয়েবসাইট থেকেই পাচ্ছেন। আর মার্কেটিং মানে প্রচারনা করতে কত খরচ করবেন আপনার ব্যাপার। ইনভেস্ট এর টাকা টা কালেক্ট করা কষ্ট আমি নিজেও বুঝি,বাট সবাই মিলে চেষ্টা করলেও কি সম্ভব না ???

যেহেতু আটঘাট বেধেই নামবেন, সবথেকে বড় ব্যাপার আপনার ওয়েবসাইট। কমদামে নিজের নামে ওয়েবসাইট বানান, এদের থেকে দূরে থাকেন। অনেকে দেখা যায় প্যাকেজ আকারে সাইট বানায়। মানে মাত্র ১০ হাজার টাকায় ওমুক সাইটের মত সাইট। খেয়াল করবেন, তাদের বানানোই থাকে, আপনার নাম আর লোগো লাগিয়ে দেয়া হয় সুধু। ইউনিক কিছু না হইলে অনলাইনে টিকে থাকা অসম্ভব। আমাকে কেউ একটা উদাহারন দেখান, নন প্রফেশনাল বা এই প্যাকেজ ভাবে বানিয়ে নেয়া একটা বড় ওয়েবসাইট বা হিট ওয়েবসাইট।

জাস্ট মাথায় রাখতে হবে, শুরুতে সুধু নিজের শহরে। পরে কাস্টমার বাড়লে, আপনার বিভাগ, কি একসময় রকমারী ডট কমের মত পুরো দেশ কভার করতে পারবেন। এরাও কিন্তু আমার এই সিস্টেমেই বিজনেস করে, আর এখন একটা ব্র্যান্ড ।

অনলাইন আর্নিং (1)

 

আপনাকে সুধু হতাস হবা যাবে না। প্রথম এক সপ্তাহ বা মাসে দেখা যাবে কিছুই বিক্রি হইলো না। সো হোয়াট, এক মাস পরে হবেই। আর একটা জোস সাইট, যেখানে কিছু অর্ডার করে কেনা যায়, সেটার মালিক, আপনি নিজে। ভাব ই আলাদা, হু ??????

আমি সুধু বেসিক ব্যাপার টা লিখলাম, খুটিনাটি লিখতে গেলে বই লিখতে হবে, আপাতত সম্ভব না।

অনলাইন আর্নিং,online earning,ইন্তেরনেটে আয়,অনলাইনে আয়,আউটসোর্সিং