walton walpad pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র উইন্ডোজ প্লাটফর্ম এর একটি অত্যাধুনিক ফোন। walton walpad pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র এর একটি অন্যতম বিশেষত্ব হচ্ছে এর উচ্চতর কনফিগার। স্মার্টফোনের সাথে পাল্লা দিয়ে সময়ের সাথে সাথে বাড়ছে ট্যাবের চাহিদাও, বিশেষতঃ গেম খেলা কিংবা ভিডিও উপভোগের জন্য ট্যাবের দারুণ জনপ্রিয়তা। তবে দেশের বাজারে থাকা বর্তমান ট্যাবগুলোর প্রায় সবগুলোই অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের, যদিও সাম্প্রতিককালে উইন্ডোজ নির্ভর ট্যাবের চাহিদা বেড়ে চলেছে। আর তাইতো দেশীয় বাজারের উইন্ডোজ নির্ভর ট্যাবের ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে সম্প্রতি Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র মডেলের নতুন একটি ট্যাব বাজারে এনেছে দেশীয় প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। উইন্ডোজ ৮.১ অপারেটিং সিস্টেমের এই ট্যাবটিতে রয়েছে ৮.৯ ইঞ্চির ফুল এইসডি আইপিএস ডিসপ্লে, ইন্টেল চিপসেটসমৃদ্ধ ১.৩ গিগাহার্টজের কোয়াডকোর প্রসেসর, ২ গিগাবাইটের র‍্যাম প্রভৃতি। ৫ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা ও ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা সংবলিত এই ট্যাবটির অন্যতম উল্লেখযোগ্য দিক হলো এর ৬৪ গিগাবাইটের ইন্টারনাল মেমোরী। এছাড়া দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারী ব্যাকআপ নিশ্চিতের জন্য ওয়ালটনের নতুন এই ট্যাবে ৬০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারী ব্যবহার করা হয়েছে।

walton walpad pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র

walton walpad pro (9)

 

 

Walpad Pro ট্যাবটিতে রয়েছে সিঙ্গেল সিম ব্যবহারের সুবিধা, যার মাধ্যমে ডাটা ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া এতে রয়েছে ১ বছরের জন্য অফিস ৩৬৫ বিনামূল্যে ব্যবহারের সুবিধা। আরও রয়েছে এক্সটারনাল ল্যান কার্ড ও ওটিজির মাধ্যমে মডেম ব্যবহারের সুবিধা। এতোসব সুবিধা সংবলিত ওয়ালটনের এই ট্যাবটির বর্তমান বাজারমূল্য ১৯,৯৯০ টাকা

বাজারে আসা নিত্যনতুন সব স্মার্টফোন ও ট্যাবের হ্যান্ডস-অন রিভিউ পাঠকদের সামনে তুলে ধরার ধারাবাহিকতায় ওয়ালটনের নতুন ট্যাব Walpad Pro এর ডিজাইন, বিল্ড কোয়ালিটি, হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার, ব্যাটারী ব্যাকআপ, গেমিং পারফরম্যান্স, ক্যামেরা পারফরম্যান্স প্রভৃতি বিশ্লেষণধর্মী তথ্য নিয়ে প্রিয়টেকের পাঠকদের জন্য আজ থাকছে Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র এর Exclusive Hands-on Review

walton walpad pro (4)

 

প্রিয় পাঠক, চলুন তাহলে এবারে একনজরে Walpad Pro এর উল্লেখযোগ্য ফিচারসমূহ দেখে নিই –

  • উইন্ডোজ ৮.১
  • ৮.৯ ইঞ্চির ফুল এইসডি আইপিএস ডিসপ্লে
  • ইন্টেল চিপসেট
  • ১.৩ গিগাহার্টজের কোয়াডকোর প্রসেসর
  • ২ গিগাবাইটের র‍্যাম
  • ৫ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা
  • ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৬৪ গিগাবাইটের ইন্টারনাল মেমোরী
  • সিঙ্গেল সিম
  • ওটিজি সাপোর্ট
  • ৬,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন পলিমার ব্যাটারী

প্রিয় পাঠক, চলুন তাহলে এবারে বিস্তারিত রিভিউয়ের দিকে যাই-
আনবক্সিং:
Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র স্মার্টফোনটির বক্সে যা যা রয়েছে –
ট্যাব
ব্যাটারী
চার্জার অ্যাডাপ্টার
ডাটা ক্যাবল
ওটিজি ক্যাবল
ইয়ারফোন
ইউজার ম্যানুয়াল
ওয়ারেন্টি কার্ড

walton walpad pro (7)

অপারেটিং সিস্টেমঃ
ওয়ালপ্যাড প্রো ট্যাবটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে উইন্ডোজ ৮.১ ব্যবহার করা হয়েছে।

walton walpad pro (1)

বিল্ড কোয়ালিটি ও ডিজাইনঃ
Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র ট্যাবটির বিল্ড কোয়ালিটি বেশ চমৎকার। ২৩২.৮ মিলিমিটার উচ্চতার এই ফোনটি প্রস্থে ১৪৯.৫ মিলিমিটার । ৮.৫ মিলিমিটার পুরুত্ববিশিষ্ট এই ট্যাবের ব্যাটারিসহ ওজন ৪৬০ গ্রাম। এটি বেশ আকর্ষণীয় ও নজরকাড়া ডিজাইনেরও।
এর একপাশের অংশে রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট, ইউএসবি ২.০ পোর্ট ও মাইক্রো এইচডিএমআই পোর্ট।

walton walpad pro (8)

 

ওয়ালপ্যাড প্রো এর আরেক পার্শ্বে রয়েছে পাওয়ার কী, ভলিউম কী, সিম কার্ড স্লট ও মাইক্রো-এসডি কার্ড স্লট। এই ট্যাবটির পেছনের দিকে রয়েছে রিয়ার ক্যামেরার লেন্স ও স্পীকার। এছাড়া সম্মুখভাগে ফ্রন্ট ক্যামেরা, সেন্সর, স্পীকার প্রভৃতি তো রয়েছেই।

walton walpad pro (7)

ডিসপ্লেঃ
৮.৯ ইঞ্চি আইপিএস ডিসপ্লেবিশিষ্ট এই ট্যাবের ডিসপ্লের রেজ্যুলেশন হলো ১৯২০x১২০০ পিক্সেলের। এর ডিসপ্লের নিরাপত্তার জন্য এতে কর্নিংয়ের গরিলা গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে।

walton walpad pro (2)

সিপিউঃ
সিপিউ হিসেবে এতে রয়েছে ১.৩ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর। দ্রুতগতির প্রসেসর থাকায় এই ট্যাবে মাল্টিটাস্কিং, এইচডি গেমিং প্রভৃতি বেশ স্মুথলি করা যায়।

চিপসেটঃ
Walpad Pro খ্যাতনামা চিপসেট নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ইন্টেলের Z3735F চিপসেট ব্যবহৃত হয়েছে ।

গ্রাফিক্স কার্ডঃ
এতে ইন্টেলের এইচডি গ্রাফিক্স কার্ড ব্যবহার করা হয়েছে।

walton walpad pro (1)

মেমোরীঃ
পূর্বেই বলেছি, Walpad Pro এর অন্যতম উল্লেখযোগ্য দিক হলো এর মেমোরী। এই ট্যাবটির ইন্টারনাল মেমোরী ৬৪ গিগাবাইটের, তবে ব্যবহারকারী চাইলে এতে ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত এক্সটারনাল মেমোরী কার্ড ব্যবহার করে এর ধারণক্ষমতা বাড়িয়ে নিতে পারবেন। এছাড়া ওটিজির সাহায্যে এতে ২ টেরাবাইট পর্যন্ত এক্সটারনাল হার্ডডিস্ক ব্যবহার করা যায়।

র‍্যামঃ
ওয়ালটন তাদের এই ট্যাবে ২ গিগাবাইটের ডিডিআর৩ র‍্যাম ব্যবহার করেছে, র‍্যাম অধিক হওয়ার কারণে এতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক অ্যাপস ইন্সটল করলেও র‍্যামের প্রায় অর্ধেক ফাঁকাই থাকে।

ক্যামেরাঃ
Walpad Pro এ রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা, ফলে যারা গেমিং ও ভিডিও দেখার পাশাপাশি ভালো রিয়ার ক্যামেরা সংবলিত ট্যাব খোঁজেন, তাদের নিকট এটি হতে পারে বেশ পছন্দের। নয়েজ ফ্রি ছবি তোলা নিশ্চিত করতে ওয়ালটন তাদের এই ট্যাবে CMOS সেন্সর ব্যবহার করেছে। তবে এর ক্যামেরায় অটোফোকাস সুবিধা থাকলেও ফ্ল্যাশ নেই।
এসবের পাশাপাশি সেলফি তোলা কিংবা ভিডিও কলিংয়ের জন্য আছে ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা।

মাল্টিমিডিয়াঃ
Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র এ রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটারের অডিও জ্যাক। এর সাথে যে হেডফোনটি দেওয়া হয় তার সাউন্ড কোয়ালিটি মন্দ নয়, এর অডিও সাউন্ড কোয়ালিটিও বেশ সুন্দর। আর এই ট্যাবে ফুল এইচডি ডিসপ্লে ব্যবহৃত হওয়ায় দারুণভাবে ভিডিও উপভোগ করা যায়। ওয়ালটনের এই ট্যাবে ১০৮০ পি ফুল এইচডি ভিডিও কোন ধরণের ল্যাগ ছাড়াই চলেছে।

গেমিং পারফরম্যান্সঃ
তরুণ প্রজন্মের ট্যাব কেনার পেছনে গেমিংয়ের উদ্দেশ্যটাই মূখ্য ভূমিকা পালন করে। আর সেদিকে খেয়াল রেখেই হয়তো ওয়ালটন তাদের এই ট্যাবটি বাজারে এনেছে। কোয়াডকোর প্রসেসরসমৃদ্ধ এই ট্যাবের গেমিং পারফরম্যান্স বেশ দারুণ। Walpad Pro ট্যাবটিতে ইন্টেলের চিপসেট ও ২ গিগাবাইটের র‍্যাম থাকায় এতে বিভিন্ন ধরণের এইচডি গেম বেশ স্মুথলি খেলা যায়।

কানেক্টিভিটিঃ
Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র ট্যাবটিতে ব্লুটুথ ৪.০, ওয়াইফাই, ওয়্যারলেস হটস্পট, এইচডিএমআই প্রভৃতি কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে।

walton walpad pro (3)

সিমঃ
ওয়ালটনের এই ট্যাবে রয়েছে ১টি সিম ব্যবহারের সুবিধা।

ব্যাটারীঃ
৮.৯ ইঞ্চি ডিসপ্লের Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র এ ৬,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী ব্যবহার করা হয়েছে। একবার ফুল চার্জ দিলে টানা ৫ ঘণ্টারও অধিক সময় ইন্টারনেট ব্রাউজ করা যায়। এছাড়া একবার ফুল চার্জে টানা ৫-৬ ঘন্টা এইচডি ভিডিও দেখা যায় কিংবা গেম খেলা যায়।

walton walpad pro (4)

ওটিজিঃ
ওয়ালটনের নতুন ট্যাব Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র এ OTG (USB On The Go) সুবিধা রয়েছে। ফলে ব্যবহারকারী এতে মাউস, কীবোর্ড, পেনড্রাইভ, এক্সটারনাল হার্ডডিস্কসহ বিভিন্ন ধরণের ইউএসবি ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারবেন।

walton walpad pro (1)

মূল্যঃ
উচ্চ কনফিগারেশনের Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র ট্যাবটির মূল্য ১৯,৯৯০ টাকা নির্ধারণ করেছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ। আপাতদৃষ্টিতে এর মূল্যকে খানিকটা বেশি মনে হলেও স্পেসিফিকেশনের তুলনায় এই মূল্যকে এই মূল্যকে সহনশীল বলাটাই হয়তো অধিক যুক্তিসঙ্গত হবে।

Walpad Pro এর ভালো লাগার দিকসমূহঃ

  • ইন্টেল চিপসেট
  • ২ গিগাবাইটের র‍্যাম
  • ফুল এইচডি ডিসপ্লে
  • দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারী ব্যাকআপ

Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র এর সীমাবদ্ধতাঃ
ক্যামেরায় ফ্ল্যাশলাইট না থাকা এই ট্যাবটির একটি উল্লেখযোগ্য সীমাবদ্ধতা। এছাড়া এর মূল্য খানিকটা কমালে ক্রেতাদের আরেকটু সুবিধা হতো।

walton walpad pro (5)

চূড়ান্ত সিদ্ধান্তঃ
যারা সাশ্রয়ী বাজেটে চমৎকার পারফরম্যান্সের উইন্ডোজ ট্যাব কিনতে চান, তাদের জন্য Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র হতে পারে আদর্শ পছন্দ। এছাড়া ইন্টেল চিপসেটসমৃদ্ধ এই ট্যাবটির ব্যাটারী ব্যাকআপ ভালো হওয়ায় গেমারদের নিকটও এটি বেশ জনপ্রিয়তা পাবে বলে আশাবাদী ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।

দেশীয় ক্রেতাদের হাতে সুলভ মূল্যে অপেক্ষাকৃত মানসম্পন্ন স্মার্টফোন ও ট্যাব তুলে দেওয়ার লক্ষ্যে যেসব প্রতিষ্ঠান কাজ করে যাচ্ছে ওয়ালটন তাদের মধ্যে অগ্রগণ্য। ভবিষ্যতে উন্নত কনফিগারেশনের ট্যাব আরও সুলভমূল্যে বাজারে আনবে ওয়ালটন – এমনটাই প্রত্যাশা।

যুগ পাঠক, Walton Walpad Pro ওয়ালটন ওয়ালপেড প্র সম্পর্কে আপনাদের মূল্যবান প্রশ্ন কিংবা মন্তব্য লিখতে পারেন কমেন্টের ঘরে। নতুন কোন স্মার্টফোনের হ্যান্ডস-অন রিভিউ নিয়ে আবারও দেখা হবে আপনাদের সাথে। সবাই ভালো থাকুন আর থাকুন যুগটেকের সাথে।

4 COMMENTS