দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে স্প্যানিশ স্মার্টফোন নির্মাতা বিকিউ বিশ্বব্যাপী তাদের উবুন্টু অপারেটিং সিস্টেম চালিত Aquarius E5 সিরিজের স্মার্টফোন ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এতে করে ইউরোপ আর চীন বাদে অন্য সবাই এই প্রথম উবুন্টু ফোন ব্যবহারের সুযোগ পাবে।

উবুন্টু

১৯৯ ইউরো মূল্যের এই স্মার্টফোনটিকে ফিচার এবং মূল্যের দিক থেকে কিছুটা লো এন্ডের বিবেচনা করছেন বিশেষজ্ঞরা। সংক্ষিপ্ত ফিচার তালিকা নিচে জুড়ে দেয়া হল:

  • ৫ ইঞ্চি ৭২০ পিক্সেল ডিসপ্লে
  • ১.৭ গিগাহার্জ মিডিয়াটেক কোয়াডকোর প্রসেসর
  • ১ জিবি র‍্যাম
  • ১৬ জিবি ইন্টারনাল মেমোরি
  • মেমোরি এক্সপ্যানশন কার্ড স্লট

অবশ্যই এ ফোনের ফিচার অতোটা উল্লেখযোগ্য নয় যতোটা উল্লেখযোগ্য এর উবুন্টু অপারেটিং সিস্টেম। তবে অ্যান্ড্রয়েড নির্ভর বিশ্ব বাজারে উবুন্টু অপারেটিং সিস্টেম চলিত এ ফোন নিজেকে কিভাবে প্রতিষ্ঠা করে তা দেখার জন্যেই মুখিয়ে আছেন সব প্রযুক্তি প্রেমীরা।

উবুন্টু স্মার্টফোন

‘ইউটিউব’ আর ‘ভিমিও’ থেকে ওয়েব ভিডিও এবং সেটে থাকা লোকাল ভিডিও একই স্ক্রীনে/পর্দায় দেবার চেষ্টা আগেও হয়েছে, কিন্তু সেটি কখনোই সফল হয়নি। সে কারণেক্যানোনিকাল -এর এই প্রকল্প আসলেই খুব উচ্চাকাংখী। তবে এমন উচ্চাকাংখা বেশ স্বাভাবিক উবুন্টু ‘র বেলায়; এর আগেও তারা ৩২ মিলিয়ন ডলারের ‘ উবুন্টু এজ ‘  স্মার্টফোন তৈরির প্রকল্প হাতে নিয়েছিলো, যদিও সেটি আর বাস্তবায়িত হয়নি।

শুরু থেকেই Aquarius E5 ‘একুয়ারিস ই৪.৫ উবুন্টু এডিশনে’ ফেসবুক, টুইটার, অ্যামাজন, টাইম আউট, ইয়াল্প এবং ‘কাট দ্য রোপ’ থাকবে, সেইসাথে স্পটিফাই, সাউন্ড ক্লাউড এবং গ্রুভসার্কও তাদের ওয়েব ‘এপিআই’র মাধ্যমে একত্রিত হচ্ছে। ক্যানোনিকাল  জানায়, উবুন্টু ফোন মেইনস্ট্রিম এইচটিএমএল৫  সাপোর্ট করে। উবুন্টু ‘র দাবি, আইওএস বা অ্যান্ড্রয়েডের নতুন আরেকটি ক্লোন নিয়ে মাঠে নামছে না তারা।

একদম নতুন এই ‘স্ক্রীন এজ ইন্ট্রারেকশান’ এবং স্কোপস-এর চমৎকারিত্ব সত্যিই দারুন এক অভিজ্ঞতা হবে; কিন্তু শুরুতে এটি যারা কিনবেন সম্ভবত আগে থেকেই তারা আসলে উবুন্টু ভক্ত!

তবে, একুয়ারিস উবুন্টু এডিশন খুচরা বাজারে পাওয়া যাচ্ছে না, কয়েক সপ্তাহের সিরিজ ফ্ল্যাশসেলের (অনলাইনে ‘ডিল অব দ্য ডে’র ধরনে) মাধ্যমে বিক্রি করা হচ্ছে এখন ইউরোপজুড়ে। তবে উবুন্টু স্মার্টফোন নিয়ে যতই তোলপাড় থাকুক না কেন এ বার  তা বাস্তবে রুপ নিতে চলেছে। কিছুদিনের মধ্যেই ইউরোপে এর দেখা মিল্বে বলে আশা করা যায়। প্রযুক্তিবিদ-দের ধারণা উবুন্টু স্মার্টফোন বাজারে একটা শক্ত স্থান ধরে রাখতে সক্ষম।