স্বল্পমূল্যে অধিক ফিচার সংবলিত স্মার্টফোন আনার ক্ষেত্রে বেশ অগ্রগণ্য দেশীয় স্মার্টফোন বাজারজাতকরণ প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন সম্প্রতি বাজারে এনেছে প্রিমো ইএফ সিরিজের নতুন স্মার্টফোন প্রিমো ইএফ৩ Primo EF3; স্পেসিফিকেশনের দিক থেকে এই ফোনটি অনেকটাই এর পূর্বসূরী Primo EF2 এর মতো। ডিসপ্লে, ইন্টারনাল মেমোরী আর ব্যাটারির দিক থেকে Primo EF2 অপেক্ষা Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ বেশ এগিয়ে থাকলেও Primo EF2 প্রিমো ইএফ২ অপেক্ষা Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ কমমূল্যের। ফলে যারা স্বল্পমূল্যে ৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে, ৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরী ও ২০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি সংবলিত ফোন কিনতে চান তাদের জন্য Walton Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ থাকতে পারে পছন্দের শীর্ষতালিকায়। এসবের পাশাপাশি ৬,৩৯০ টাকা মূল্যের ডুয়েল সিম সুবিধাসম্পন্ন এই ফোনে প্রয়োজনীয় প্রায় সকল ফিচারই বিদ্যমান।

প্রিমো ইএফ৩ Primo EF3 রিভিউ

প্রিম ইএফ৩ (7)

বাজারে আসা নিত্যনতুন সব স্মার্টফোনের হ্যান্ডস-অন রিভিউ পাঠকদের সামনে তুলে ধরতে যুগটেক বরাবরই সচেষ্ট। এরই ধারাবাহিকতায় ওয়ালটনের এন্ট্রি লেভেলের স্মার্টফোন Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এর ডিজাইন, ব্যাটারী ব্যাকআপ, গেমিং পারফরম্যান্স, বেঞ্চমার্ক স্কোর, ক্যামেরা পারফরম্যান্স প্রভৃতি বিশ্লেষণধর্মী তথ্য নিয়ে আজকের আয়োজনে থাকছে Walton Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এর Hands-on Review

যুগ পাঠক, রিভিউয়ের শুরুতে চলুন একনজরে Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এর উল্লেখযোগ্য ফিচারসমূহ দেখে নেওয়া যাক –

  • অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে
  • ১.২ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর
  • ১ গিগাবাইটের র‍্যাম
  • মালি ৪০০ জিপিউ
  • ৫ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা
  • ভিজিএ ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৮ গিগাবাইটের ইন্টারনাল মেমোরী
  • ডুয়েল সিম
  • ২,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী

প্রিম ইএফ৩ (14)

 

এবারে তাহলে বিস্তারিত রিভিউয়ের দিকে যাওয়া যাক-

আনবক্সিং:
Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ স্মার্টফোনটি কিনলে আপনি এর বক্সে যা পাবেন –

  • হ্যান্ডসেট
  • ব্যাটারী
  • চার্জার অ্যাডাপ্টার
  • ডাটা ক্যাবল
  • ইয়ারফোন
  • ইউজার ম্যানুয়াল
  • ওয়ারেন্টি কার্ড

প্রিম ইএফ৩ (9)

 

অপারেটিং সিস্টেমঃ
Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট ব্যবহার করা হয়েছে।

প্রিম ইএফ৩ (9)
তবে শীঘ্রই এই ফোনে ললিপপ আপডেট দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ওয়ালটন।

বিল্ড কোয়ালিটি ও ডিজাইনঃ
ডিজাইনের দিক থেকে প্রিমো ইএফ৩ স্মার্টফোনটি বেশ আকর্ষণীয়। এই ফোনের উপরের অংশে রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট ও ইউএসবি ২.০ পোর্ট । এছাড়া ফোনটির একপার্শ্বের অংশে রয়েছে ভলিউম কী ও পাওয়ার কী।

প্রিম ইএফ৩ (5)

 

১৪২ মিলিমিটার উচ্চতার এই ফোনটি প্রস্থে ৭২.৭ মিলিমিটার ও এর পুরুত্ব ৯.৪ মিলিমিটার আর এই ফোনের ওজন ১৬৫ গ্রাম (ব্যাটারীসহ) । প্রিমো ইএফ৩ স্মার্টফোনটির পেছনের দিকে উপরের অংশে আছে রিয়ার ক্যামেরার লেন্স ও ফ্ল্যাশলাইট আর নিচের দিকে রয়েছে স্পীকার। এছাড়া সম্মুখভাগে ফ্রন্ট ক্যামেরা, সেন্সর, স্পীকার প্রভৃতি তো রয়েছেই।

প্রিম ইএফ৩ (6)

ডিসপ্লেঃ
এই ফোনে ৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে, আর এর ডিসপ্লের রেজ্যুলেশন হলো ৪৮০x৮৫৪ পিক্সেলের।

প্রিম ইএফ৩ (2)

 

ইউজার ইন্টারফেসঃ
ওয়ালটনের Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ ফোনটির ইউজার ইন্টারফেস অন্যান্য কিটক্যাট চালিত স্মার্টফোনের মতোই-

নোটিফিকেশন বারঃ

প্রিম ইএফ৩ (1)

হোমস্ক্রীনঃ

প্রিম ইএফ৩ (2)

অ্যাপ ড্রয়ারঃ

প্রিম ইএফ৩ (3)

প্রিম ইএফ৩ (4)
সিপিউঃ
সিপিউ হিসেবে এই ফোনে রয়েছে ১.২ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর, ফলে স্বল্পমূল্যের এই ফোনে মাল্টিটাস্কিং, গেমিং প্রভৃতি বেশ স্মুথলি করা যায়।

চিপসেটঃ
এন্ট্রি লেভেলের স্মার্টফোন Walton Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এ মিডিয়াটেকের চিপসেট ব্যবহৃত হয়েছে ।

জিপিউঃ
ওয়ালটন তাদের এই ফোনে মালি-৪০০ জিপিউ ব্যবহার করেছে। তবে মূল্য বিবেচনায় এন্ট্রি লেভেলের এই ফোনের গ্রাফিক্স কোয়ালিটি কিংবা গেমিং পারফরম্যান্স মন্দ নয়।

প্রিম ইএফ৩ (13)

মেমোরীঃ
Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ স্মার্টফোনটিতে ৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরী দেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে প্রায় ৫.৮৫ গিগাবাইট ব্যবহারযোগ্য। তবে এতে ৩২ গিগাবাইট পর্যন্ত এক্সটারনাল মাইক্রো-এসডি কার্ড ব্যবহার করে এর ধারণক্ষমতা বাড়িয়ে নেওয়া যাবে।

প্রিম ইএফ৩ (7)
র‍্যামঃ
Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ ফোনটিতে ১ গিগাবাইটের র‍্যাম ব্যবহার করা হয়েছে, যার মধ্যে ৯৬০ মেগাবাইট ব্যবহারযোগ্য।

প্রিম ইএফ৩ (8)
ক্যামেরাঃ
Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা। নয়েজবিহীন ছবি তুলতে এর ক্যামেরায় CMOS সেন্সর ব্যবহৃত হয়েছে। এছাড়া এই ফোনের ক্যামেরায় অটোফোকাস সুবিধা বিদ্যমান।
দেখুন এই ফোনের ক্যামেরা সেটিংস-

প্রিম ইএফ৩ (5)
প্রিম ইএফ৩ (6)

দেখুন Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এর ক্যামেরায় তোলা ছবিঃ

প্রিম ইএফ৩ (3)
প্রিম ইএফ৩ (4)

এছাড়া ভিডিও কলিংয়ের জন্য এই ফোনে রয়েছে ভিজিএ ফ্রন্ট ক্যামেরা।

মাল্টিমিডিয়াঃ
Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এ রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটারের অডিও জ্যাক। এর সাথে যে হেডফোনটি দেওয়া হয় তার সাউন্ড কোয়ালিটি মোটামুটি মানের, এর অডিও সাউন্ড কোয়ালিটিও বেশ সুন্দর।

প্রিম ইএফ৩ (11)

 

আর এই ফোনে আইপিএস ডিসপ্লে ব্যবহৃত হওয়ায় এতে দারুণভাবে ভিডিও উপভোগ করা যায়। এই ফোনে ১০৮০ পি ফুল এইচডি ভিডিও কোন ধরণের ল্যাগ ছাড়াই চলে।

প্রিম ইএফ৩ (16)

গেমিং পারফরম্যান্সঃ
স্বল্পবাজেটের এই ফোনটি সাধারণ গেমিংয়ের জন্য মন্দ নয়। ১ গিগাবাইট র‍্যাম ও কোয়াডকোর প্রসেসরসমৃদ্ধ এই ফোনে বিভিন্ন ধরণের গেম বেশ স্মুথলি খেলা যায়। স্বল্পর‍্যামবিশিষ্ট এই ফোনে টেম্পল রান ওজেড, রিয়াল ক্রিকেট, টেম্পল রান ২ প্রভৃতি জনপ্রিয় গেম কোন ধরণের ল্যাগিং ছাড়াই খেলা গেছে।

প্রিম ইএফ৩ (1)

 

কানেক্টিভিটিঃ
এই ফোনে ব্লুটুথ ৪.০, ওয়াইফাই, ওয়্যারলেস হটস্পট প্রভৃতি কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে। এছাড়া জিপিএস নেভিগেশন সুবিধাতো রয়েছেই।

সিমঃ
ওয়ালটনের অধিকাংশ স্মার্টফোনের ন্যায় প্রিমো ইএফ৩ এ-ও রয়েছে ২টি সিম ব্যবহারের সুবিধা।
ব্যাটারীঃ
৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে সংবলিত Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এ ২,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী ব্যবহার করা হয়েছে। অধিক মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ব্যবহৃত হওয়ায় এই ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ সন্তোষজনক। একবার ফুল চার্জ দিলে টানা ৬ ঘন্টা থেকে ৭ ঘন্টা ইন্টারনেট ব্রাউজ করা যায়। এছাড়া একবার ফুল চার্জে টানা প্রায় ৭ ঘন্টা এইচডি ভিডিও উপভোগ করা যায়।

প্রিম ইএফ৩ (8)
সেন্সরঃ
ওয়ালটনের নতুন এই ফোনে সেন্সর হিসেবে রয়েছে অ্যাক্সিলেরোমিটার
বেঞ্চমার্কঃ
কোন ডিভাইসের সক্ষমতা যাচাইয়ের জন্য সাধারণত বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাই করা হয়ে থাকে। Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এর বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাইয়ের জন্য বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের জনপ্রিয় অ্যাপ AnTuTu বেছে নিয়েছিলাম; AnTuTu তে এর স্কোর এসেছে ১৭,৫৭৫

প্রিম ইএফ৩ (12)

 

বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের আরেক অ্যাপ Nenamark এ Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এর স্কোর এসেছে ৫৯.৬

প্রিম ইএফ৩ (15)

OTA আপডেট সুবিধাঃ
এই ফোনে OTA বা Over The Air আপডেট সুবিধা রয়েছে, যার ফলে পিসির সাথে সংযুক্ত করা ছাড়াই এর সফটওয়্যার আপডেট করা যাবে।

প্রিম ইএফ৩ (10)

মূল্যঃ
ক্রেতাদের সাধ্যের কথা বিবেচনা করে আকর্ষণীয় ডিজাইন ও প্রয়োজনীয় নানা ফিচারসংবলিত Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ স্মার্টফোনটির মূল্য ৬,৩৯০ টাকা নির্ধারণ করেছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।

Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এর ভালো লাগার দিকসমূহঃ

  • অধিক মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি
  • ১ গিগাবাইট র‍্যাম
  • সন্তোষজনক ক্যামেরা পারফরম্যান্স
  • বড় ডিসপ্লে
  • স্বল্পমূল্য

Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ এর সীমাবদ্ধতাঃ
স্বল্পমূল্যের এই ফোনটির নিম্নোক্ত কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে, যদিও মূল্য বিবেচনায় এসব সীমবদ্ধতা ততোটা উল্লেখ করার মতো নয়।

  • অপেক্ষাকৃত দুর্বল মালি-৪০০ জিপিউ এর ব্যবহার
  • ভিজিএ ফ্রন্ট ক্যামেরা

চূড়ান্ত সিদ্ধান্তঃ
যারা স্বল্পমূল্যে প্রয়োজনীয় নানা ফিচার সংবলিত স্মার্টফোন কিনতে চান, সেই সাথে চান বড় ডিসপ্লে ও অধিক মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি, তাদের জন্য ওয়ালটনের নতুন ফোন Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ থাকতে পারে পছন্দের শীর্ষ তালিকায়। ভবিষ্যতে আরও উন্নত কনফিগারেশনের স্মার্টফোন এমন সুলভমূল্যে বাজারে আনবে ওয়ালটন – এমনটাই প্রত্যাশা।

প্রিম ইএফ৩ (6)

যুগ পাঠক, আজ তাহলে এপর্যন্তই। Primo EF3 প্রিমো ইএফ৩ সম্পর্কে আপনাদের মূল্যবান প্রশ্ন কিংবা মন্তব্য লিখুন কমেন্টে। নতুন কোন স্মার্টফোনের হ্যান্ডস-অন রিভিউ নিয়ে আবারও দেখা হবে আপনাদের সাথে। সবাই ভালো থাকুন আর থাকুন যুগটেকের সাথে।