আপনি কি আপনার পুরনো স্মার্টফোনটি বিক্রি করে নতুন স্মার্টফোন কেনার পরিকল্পনা করছেন ? তাহলে সাবধান থাকুন, কেননা পুরনো

মোবাইল ফোন

এর দিকে হ্যাকারদের দৃষ্টি থাকে সবচেয়ে বেশি।

বর্তমানে অধিকাংশ মানুষ তাদের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংরক্ষণের কাজে তাদের স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকে। এর মধ্যে রয়েছে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত তথ্য, ডেবিট- ক্রেডিট কার্ডের তথ্য কিংবা অন্যান্য ফিনান্সিয়াল অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত তথ্য। আর এসকল তথ্য হ্যাকারদের হাতে গেলে বড় ধরণের ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে ব্যবহারকারীদের।

ইন্টারনেটের সহজলভ্যতার কারনে বর্তমানে অনেকেই তাদের বিভিন্ন কাজ যেমন ব্যাংকিং, ই-শপিং, কিংবা অন্যান্য কাজ সেরে থাকেন। আর এসব কাজে ব্যবহার করা ডেবিট কিংবা ক্রেডিট কার্ডের তথ্য খুব সহজেই চলে যেতে পারে হ্যাকারদের হাতে।

ইন্ডিয়ান স্কুল অফ ইথিক্যাল হ্যাকার-এর কো-ফাউন্ডার এবং পরিচালক সন্দীপ সেনগুপ্ত জানান,” ফোন মেমোরি কিংবা মেমোরি কার্ড থেকে মুছে ফেলার পরও বিভিন্ন তথ্য সেখানে থেকে যায়। অন্য কোন ডেটা সেই জায়গা ওভার রাইট করার আগ পর্যন্ত খুব সহজেই এই তথ্য পুনরুদ্ধার করা সম্ভব। আর তাই মুছে ফেলার পরিবর্তে সেখানে অন্য কোন ডেটা ওভার রাইট করাই যুক্তিসঙ্গত। অন্যথায় এই বড় বিপর্যয় নেমে আসতে পারে।”

ICT 2014 সম্মেলনে তিনি আরও জানান, হ্যাকাররা বর্তমানে মোবাইল ফোনকে তাদের লক্ষ্যবস্তু হিসেবে নির্ধারণ করেছে। আর তাই ব্যবহারকারীদের এই ব্যাপারে খুব সতর্ক থাকার পরামর্শও দেন তিনি।

মোবাইল ফোন,স্মার্টফোন,হ্যাকার,ফিনান্সিয়াল অ্যাকাউন্ট,ডেবিট- ক্রেডিট,ব্যাংক অ্যাকাউন্ট,মেমোরি কার্ড,ইন্ডিয়ান স্কুল