মাইক্রোসফটের ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ওয়েব ব্রাউজারের একটি ত্রুটি হ্যাকারদের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়ার সুযোগ করে দেয়। এই কথা স্বীকার করেছে স্বয়ং মাইক্রোসফট। তারা আরও বলেছে, বিশেষ করে যারা উইন্ডোজ এক্সপি ব্যবহারকারী তাদের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি।রবিবার কোম্পানিটি ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার সংস্করণ ৬ থেকে শুরু করে ১১ পর্যন্ত সবগুলোতেই ত্রুটি রয়েছে বলে ঘোষনা দেয়। এবং একই নেটওয়ার্কে অবস্থিত কম্পিউটার থেকে তথ্য চুরি করার ক্ষেত্রে হ্যাকার কে একজন বৈধ ব্যবহারকারী হিসেবে অনুমোদন দেয়।
images

বিগত ১০ বছরে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের মার্কেট শেয়ার অনেক নিচে নেমে এসেছে। তবে এখনও বিশ্বের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর ১০ ভাগ এই ব্রাউজার ব্যবহার করে থাকে। উইন্ডোজ এক্সপি’র সার্ভিস বন্ধ করে দেয়ার পর এরকম একটি ঘোষনার ফলে অনেকেই এক্সপি ছাড়তে বাধ্য হবেন বলে আশা করছে মাইক্রোসফট। এক্সপি ব্যবহারকারীরা নিরাপদ নয় এবং এক্সপি বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর এটিই প্রথম ত্রুটি যা মাইক্রোসফট এক্সপির জন্য ফিক্স করে দিবে না। তারপরেও যারা এক্সপি ব্যবহার করতে চান তারা ফায়ারফক্স অথবা গুগল ক্রোমের মত ব্রাউজার ব্যবহার করতে পারেন।

ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের সকল ভার্সনে বিদ্যমান এই ত্রুটি কবে কীভাবে ফিক্স করা হবে তা জানায় নি মাইক্রোসফট। তবে অতি দ্রুত উইন্ডোজ ৭ এবং উইন্ডোজ ৮ এর জন্য প্যাচ রিলিজ করবে তারা। এত কম সংখ্যক ব্যবহারকারীর জন্য মাইক্রোসফট তাদের এই ঝুঁকিপূর্ণ ওয়েব ব্রাউজার কতদিন চালু রাখে সেটাই দেখার বিষয়।