স্বল্পমূল্যে উন্নত ফিচারসমৃদ্ধ স্মার্টফোন আনার ক্ষেত্রে চায়নিজ স্মার্টফোন নির্মাতা শাওমি এর জুড়ি মেলা ভার ! আর তাইতো স্মার্টফোনের বাজারে প্রবেশের মাত্র চার বছরের মধ্যেই তারা নিজেদের পরাশক্তি হিসেবেই দাঁড় করিয়েছে। উন্নত কনফিগারেশন কিন্তু স্বল্পমূল্য – এই মূলমন্ত্রই শাওমির অগ্রযাত্রার মূল কারণ বলে মনে করেন প্রযুক্তি-বিশ্লেষকরা । উল্লেখ্য, কিছুদিন পূর্বে বিক্রি শুরুর মাত্র ৩ মিনিট ৫৯ সেকেন্ডের মধ্যেই তাদের উচ্চ কনফিগারেশনের ট্যাব শাওমি মি প্যাড ৫০ হাজার পিস বিক্রি হয়েছিলো। আর গত বছরের ফ্ল্যাগশীপ Xiaomi Mi 3 সম্পর্কে তো নতুন করে কিছুই বলার নেই। তুলনামূলক সুলভমূল্যে হাই-এন্ডের এমন সব স্মার্ট ডিভাইস আনার ধারাবাহিকতায় এবারে তারা ঘোষণা দিলো তাদের ফ্ল্যাগশীপ স্মার্টফোন Xiaomi Mi 4 এর।

Xiaomi-Mi-4-officially-unveiled

 

Xiaomi এর প্রধান নির্বাহী Lei Jun বেইজিংয়ে আয়োজিত এক ইভেন্টে আপকামিং এই স্মার্টফোনটির ঘোষণা দিয়েছেন। অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট অপারেটিং সিস্টেমের এই ফোনে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮০১ চিপসেটসমৃদ্ধ ২.৫ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর ব্যবহৃত হয়েছে। শাওমি কর্তৃপক্ষের দাবী অনুযায়ী এই মুহূর্তে Xiaomi Mi 4 বিশ্বের সবথেকে দ্রুতগতির স্মার্টফোন। প্রসঙ্গতঃ উল্লেখ্য, স্যামসাংয়ের ফ্ল্যাগশীপ স্মার্টফোন গ্যালাক্সী এস-৫ এও এই চিপসেট ব্যবহৃত হয়েছে। এছাড়া এতে রয়েছে ৩ গিগাবাইটের ডিডিআরথ্রি র‍্যাম। আর ভালো গেমিং পারফরম্যান্স ও উচ্চমানের গ্রাফিক্সের জন্য এই ফোনে জিপিউ হিসেবে রয়েছে বেশ শক্তিশালী অ্যাড্রেনো ৩৩০ ।

gdg

 

Xiaomi Mi 4 স্মার্টফোনটিতে ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরার পাশাপাশি থাকবে ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা। ফলে সেলফি প্রেমীদের নিকট ভালোই জনপ্রিয়তা পাবে এই ফোন – এমনটা নিঃসন্দেহেই বলা যায়। আর হ্যাঁ , ৫ ইঞ্চি পর্দার এই ফোনের ডিসপ্লে রেজ্যুলেশন হচ্ছে ১০৮০x১৯২০ পিক্সেল । বড় ডিসপ্লের এই ফোনে দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারী ব্যাকআপের জন্য এতে ৩,০৮০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারী ব্যবহার করা হয়েছে।

শাওমি এর নতুন এই স্মার্টফোনটি পাওয়া যাবে ১৬ ও ৬৪ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরীর ভিন্ন ২টি মডেলে।

dd

 

একনজরে Xiaomi Mi 4 এর উল্লেখযোগ্য ফিচারসমূহঃ

  • অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট
  • ৫ ইঞ্চি স্ক্রীন, ডিসপ্লে রেজ্যুলেশন ১০৮০x১৯২০ পিক্সেল
  • ৩ গিগাবাইটের র‍্যাম
  • ১৬/৬৪ গিগাবাইটের ইন্টারনাল মেমোরী
  • ২.৫ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর
  • স্ন্যাপড্রাগন ৮০১ চিপসেট
  • অ্যাড্রেনো ৩৩০ জিপিউ
  • ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা
  • ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৩০৮০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারী

10371636_735256323176630_3280726952937514818_n

 

কবে বাজারে আসবে Xiaomi Mi 4 কিংবা কেমনই বা হবে এর মূল্য – সে সম্পর্কিত কোন ধরণের তথ্য এখনও জানায়নি শাওমি কর্তৃপক্ষ। বিস্তারিত জানতে যুগটেকের সাথেই থাকুন।

২০১৩ সালে স্যামসাং-কে পেছনে ফেলে চীনের বাজারে সর্বোচ্চ হ্যান্ডসেট বিক্রি করেছিলো Xiaomi, আর তাদের এই সফলতার পেছনে গত বছরের ফ্ল্যাগশীপ Xiaomi Mi 3 এর উল্লেখযোগ্য ভূমিকা ছিলো। এবছরে Xiaomi Mi 4 তাদের বর্ধনশীল বাজারকে কতোটা সুসংহত করে এখন সেটাই দেখার অপেক্ষা !

পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুতগতির স্মার্টফোন Mi 4,সবচেয়ে দ্রুতগতির স্মার্টফোন Mi 4,স্মার্টফোন Mi 4,Mi 4,দ্রুতগতির স্মার্টফোন Mi 4,শাওমি,xiaomi Mi 4